রবিবার ১৬ জুন ২০২৪
Space Advertisement
Space For advertisement


‘বাংলাদেশ দলের ম্যাচ টেম্পারমেন্টের অভাব’


আমাদের কুমিল্লা .কম :
14.10.2023

জাহিদ হাসান নাইম ।। “খেলা হবে ভারতের মাঠে, বিশ্লেষণ শুনবো কুমিল্লার জমিন-এ” বিষয়ক টক শো অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) রাতে দৈনিক আমাদের কুমিল্লা ও জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল কুমিল্লার জমিনের যৌথ উদ্যোগে মিডল্যান্ড হসপিটাল প্রাঃ লিঃ এর সৌজন্যে এ টক শো অনুষ্ঠিত হয়। সাংবাদিক, সংগঠক ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক লেখক শাহাজাদা এমরানের সঞ্চালনায় টক-শো তে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাডমিন্টন ফেডারেশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কবিরুল ইসলাম শিকদার ও অগ্রণী ব্যাংক লাকসাম শাখার ব্যবস্থাপক নুরুল আমিন কাজল।
এসময় টক-শো তে শুক্রবারে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপ ক্রিকেট খেলায় নিউজিল্যান্ডের সাথে বাংলাদেশের খেলা ও বিশ্বকাপের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দিক নিয়ে আলোচনা উঠে এসেছে।
আলোচনায়, কবির শিকদার বলেন, বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান এগুলো এক মানের দল আর ভারত, নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া এগুলো আরেক মানের দল। ম্যাচ জেতার জন্য যে মানসিকতা প্রয়োজন, তা থেকে আমরা অনেকটা পিছিয়ে আছি। বাংলাদেশ ইংল্যান্ডের কাছে এত শোচনীয়ভাবে পরাজিত হবে তা ভাবি নি। ওপেনিং নিয়ে যে সমস্যা, তা আমরা নিজেরাই তৈরী করেছি। তামিম নিজ ইচ্ছায় খেলা ছেড়ে দিয়েছে, এতে বোঝা যায় তার দেশের প্রতি কোনো ভালোবাসাই নেই। আর, সাকিব যতটা প্রয়োজন এই বিষয়টা আরো উস্কে দিয়েছে। তাদের দেশের প্রতি ভালোবাসা থাকলে তাহলে এমনটা হতো না। মাহাদীর জায়গায় যদি মাহমুদুল্লাহ কে রাখতো তাহলে ভালো হতো৷ বাংলাদেশ দলের ম্যাচ টেম্পারমেন্টের অভাব। আর, নিউজিল্যান্ডের সাথে ম্যাচে ২৫০ রান একটি ভালোমানের স্কোর হবে। আর, একজন ব্যাটসম্যান যুক্ত করলে আমার মতে ভালো হবে। বাংলাদেশের বোলিং নিয়ে আমি সন্তুষ্ট। তারা দূর্দান্ত বোলিং করছে। আমি মনে করি, জুনিয়র তামিমকে বাদ দিয়ে মিরাজ ও লিটনকে ওপেনিংয়ে খেলালে দলে ভালো ফল আসবে। ব্যাটিংয়ের গভীরতা প্রয়োজন আমাদের । আর খেলোয়াড়দের মধ্যে দেশপ্রেম আনলেই দল আরো অনেক ভালো করতে পারবে। নিউজিল্যান্ডের সাথে খেলায় বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা ৬০ ভাগ আর বাংলাদেশের ৪০ ভাগ।
আরেক আলোচক নূরুল আমিন কাজল বলেন, প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের পরাজয় অনাকাঙ্ক্ষিত ছিলো। ইংল্যান্ড অবশ্যই দাপুটে দল। বাংলাদেশের সাথে এসে ইংল্যান্ড তাদের অ্যাটাকিং টা দেখিয়ে দিয়েছে। বাংলাদেশকে যদি জিততে হয়, তাহলে ভালো রান করতে হবে। আর নিউজিল্যান্ডের সাথে খেলায় যে স্টেডিয়ামে খেলা হবে, সেটি স্পিন বান্ধব স্টেডিয়াম। তাই, বাংলাদেশ দলে চারজন বোলারের পাশাপাশি একজন স্পিনার রাখা উচিৎ। আর টসে জিতলে, অবশ্যই ব্যাটিং করা উচিৎ। আর, আমি বিশ্বাস করি এই মাঠে ২৫০ এর বেশী করা যাবে না। ২৬০ কিংবা ২৭০ করলে জিতার সম্ভাবনা থাকবে। আর সাকিবের নামে দূর্নাম থাকলেও, সাকিব সাকিবই। আর, নিউজিল্যান্ডের সাথে খেলায় ম্যাচে মাহমুদুল্লাহকে রাখলে ভালো হতো। তামিমকে বিশ্বকাপ স্কোয়াডের বাহিরে রাখা উচিৎ হয় নি৷ চাইলেই, তামিম এবং সাকিব দেশের স্বার্থে এক থাকতে পারতো। তানজিদ তামিমও কিন্তু ভালো খেলে। সে বোলিং স্পিডকে কাজে লাগাতে পারে। আশা করি, তানজিদ তামিম ও লিটনের জুটি ভালো খেলবে। নিউজিল্যান্ডের খেলায় বাংলাদেশ দল ভালো করুক, জয় ছিনিয়ে আনুক এটাই চাই।