রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
Space Advertisement
Space For advertisement


পাওনা টাকা চাওয়ায় স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা


আমাদের কুমিল্লা .কম :
24.07.2023

স্টাফ রিপোর্টার ।। কুমিল্লার লাকসামে পাওনা টাকা চাওয়ায় পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ বলছে- ভাঙারি ব্যবসার দাদনের টাকা নিয়ে বিরোধে এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে।
রবিবার (২৩ জুলাই) সকালে নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। এর আগে শনিবার দিবাগত মধ্যরাতে স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের পাশে লাকসাম পৌর শহরের গন্ডামারা এলাকায় অবস্থিত ওই ব্যবসায়ীর দোকানের পাশ থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
নিহত আউয়াল হোসেন সিয়াম ওরফে মনা (২২) লাকসাম পৌর শহরের জবাইখানা এলাকার বাসিন্দা সরাফত আলীর ছোট ছেলে। মনার বড় ভাই শফিউল্লাহ লাকসাম পৌর যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক। এছাড়া আরেক ভাই রায়হান হোসেন লাকসাম পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক। নিহত মনাও লাকসাম পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী ছিলেন বলে জানা গেছে। ঘটনার সময় মনার সঙ্গে থাকা জাহাঙ্গীর আলম নামে একজনকেও ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। তিনি বর্তমানে লাকসামের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
পুলিশ ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নিহত মনা পাশের কালোরা খাল পাড় এলাকার হকার সবুজকে ভাঙারি মালামাল কেনার জন্য ৫০ হাজার টাকা দাদন দেয়। সবুজ বেশ কিছুদিন কাজ না করলে শনিবার রাতে মনা তার কাছে পাওনা দাদনের টাকা ফেরত চায়। এনিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে মনা এবং তাাঁর সঙ্গে থাকা পাশের বিনই গ্রামের জাহাঙ্গীরকে ছুরিকাঘাত করে সবুজ। আহতাবস্থায় জাহাঙ্গীর দৌঁড়ে পালিয়ে গেলেও মনাকে একা পেয়ে বুকের মধ্যে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে সবুজ পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে লাকসাম থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে নিয়ে আসে।
নিহত মনার বড় ভাই অলিউল্লাহ লিটন অভিযোগ করে বলেন, আমার ছোট ভাই হকার সবুজের কাছে দাদনের পাওনা টাকা চাইতে গেলে সে সিয়ামকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে দোকানের পাশে ঝোপের মধ্যে লাশ রেখে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় আমরা হত্যা মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।
লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল্লাহ আল মাহফুজ বলেন, দাদনের টাকা নিয়ে বিরোধে ওই ভাঙারি ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনায় আহত জাহাঙ্গীর ঘটনার বিস্তারিত পুলিশকে জানিয়েছেন। আমরা ঘটনাটি ভালোভাবে তদন্ত করে দেখছি। এছাড়া খুনে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছি।