রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
Space Advertisement
Space For advertisement


তাহের এমপি হওয়ার পর চৌদ্দগ্রামে আ’লীগের বহু নেতা কর্মীকে রগ কেটে হত্যা করেছে। – মুজিবুল হক এমপি


আমাদের কুমিল্লা .কম :
11.06.2023

চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি ।। কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ও সাবেক রেলপথমন্ত্রী মুজিবুল হক এমপি বলেন ক্ষামতায় এসে চৌদ্দগ্রামেসহ সারা দেশে জামায়াত-শিবির ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল। জামায়াতের নেতা আবদুল্লাহ মোঃ তাহের আজ ঢাকা সমাবেশ করে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবীসহ আ’লীগের সরকারের সমালোচনা করেছেন। অথচ তিনি ২০০১ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর তার নির্দেশে জামায়াত-শিবির নেতা-কর্মীরা চৌদ্দগ্রাম আ’লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বহু নেতা কর্মীকে রগ কেটে হত্যা করেছে। তার হাতে রক্তের দাগ রয়েছে। যার হাতে আ’লীগের নেতা-কর্মীদের হত্যার রক্তের দাগ আছে তার মুখে শান্তির কথা মানায় না। ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত চৌদ্দগ্রামে আ’লীগের নেতা-কর্মীরা জামায়াত-শিবিরের অত্যাচারে বাড়ি ঘরে থাকতে পারে নাই। অনেকে বাবা-মায়ের জানাযায়ও অংশগ্রহন করতে পারে নাই।
মুজিবুল হক আরো বলেন, জামায়াত-শিবিরের সন্ত্রাসী মোতাইয়া ও মুন্নার অত্যাচারে যখন চৌদ্দগ্রামের মানুষ অতিষ্ট ঠিক সে সময় র‌্যাবের ক্রস ফায়ারে তারা মারা যান। ডাঃ তাহের চৌদ্দগ্রামে কোন উন্নয়ন করেনি। তার ছোট ভাই একরামুল হক হারুন তার নিজস্ব বাহিনী তৈরী করে মানুষের উপর নির্যাতন-নিপীড়ন তৈরী করেছিলেন। সে কথা মানুষ আজও ভুলে যায়নি। ডাঃ তাহেরের নির্দেশে চৌদ্দগ্রামে আ’লীগের নেতাকর্মীদের হত্যা করা হয়েছে। সেই জন্য ২০০৮ সালে নির্বাচনে চৌদ্দগ্রামের জনগণ ডাঃ তাহেরকে ভোট দেয় নাই। শান্তির প্রতিক নৌকা মার্কার প্রার্থীকে বিপুল ভোট দিয়ে জয় লাভ করিয়েছে। বর্তমানে চৌদ্দগ্রামে জামায়াত-শিবিরের কোন অস্তিত্ব নেই।
তিনি শনিবার বিকেলে উপজেলার আলকরা ইউনিয়নের আ’লীগের উদ্যোগে জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি খোরশেদ আলমের সভাপতিতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আবদুস ছোবহান ভূঁইয়া হাসান, সহ-সভাপতি ও পৌর মেয়র জি এম মীর হোসেন মীরু, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ রহমত উল্লাহ বাবুল,কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবকলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য আবু তাহের।অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ইছাক খান, এনামুল হক,উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক ভিপি ফারুক আহম্মেদ মিয়াজী,জাকির হোসেন ভূইয়া,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, কামরুল আলম মোল্লা,উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক জি এম জাহিদ হোসেন টিপু,উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন-আহবায়ক সৈয়দ আহম্মেদ খোকন,আলকরা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাঈন উদ্দিন ভূইয়া,
কাশিনগর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন,মুন্সিরহাট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাহফুজ আলম,জগন্নাথদিঘী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জানে আলম,ঘোলপাশা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান একে খোকন,কনকাপৈত ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল,গুনাবতী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল,গুনাবতী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ভিপি খায়ের আহম্মেদ,আলকরা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জিহাদ হোসেন জাবেদ প্রমুখ।