রবিবার ২৫ †m‡Þ¤^i ২০২২
Space Advertisement
Space For advertisement


কেমন থাকবে কুমিল্লায় রমজানের বাজার?


আমাদের কুমিল্লা .কম :
29.03.2022

মাহফুজ নান্টু ।। আসন্ন রমজান মাসে কুমিল্লায় দ্রব্যমূল্যর বাজার নিয়ন্ত্রণে জেলা প্রশাসন ও জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের সমন্বয়ে একাধিক টাস্কফোর্সের অভিযান পরিচালনা করা হবে।
এদিকে বাজার ঘুরে দেখা যায়, গত সপ্তাহ দুয়েক আগের চেয়ে বাজার অনেকটাই স্বাভাবিক। নিত্যপণ্যের দাম নিয়ে অভিযোগ নেই ক্রেতাদের।
নগরীর রাজগঞ্জ, চকবাজার, বাদশা মিয়া ও নিউমার্কেট বাজার ঘুরে দেখা যায়, ছোলা ৭৫ টাকা,খোলা তেল ১৩৬ টাকা, ৫ লিটার তেল সয়াবিন ৭৬০, বেসন ৮০, পেয়াজ ৩০, রসুন দেশি ৫০, ভারতীয় বড়টা ১২০, আদা ৬০, ভারতীয় ১শ, মসুরির ডাল ১শ’ , খেসারি ৭০ টাকা, পোলার চাল ১১০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন জাতের খেজুর ১২০ টাকা থেকে ১২শ’ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
রাজগঞ্জ কেশব স্টোর্সের মালিক কেশব চন্দ্র সাহা বলেন, গত সপ্তাহ দুয়েক আগে তেলসহ অন্যান্য নিত্যপণ্যের দাম একটু বেশি ছিলো। এখন বাজার অনেকটাই স্বাভাবিক।
প্রায় একই কথা বললেন জিলানী স্টোর্সের স্বত্বাধিকারী মোঃ নাছির মিয়া ও সুশান্ত স্টোর্সের মালিক অমল সাহা। তারা জানান, রমজানে দ্রব্যমূল্যর দাম বাড়ার সম্ভাবনা নেই। কারণ হিসেবে মুদি দোকানিরা উল্লেখ করেন বাজারে এখন সরবরাহ ভালো।
নিউমার্কেটে রমজানের বাজার করতে আসা ব্যবসায়ী ইব্রাহিম খলিল বলেন, পেয়াজ, আদা, রসুনসহ অন্যান্য পণ্যের দাম কিছুটা কম। তবে তেলের দামটা আরেকটু কম হলে ভালো হবে।
রাজগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান আজগর বলেন, নিত্যপণ্যের দাম এখন স্বাভাবিক। তবে কাঁচামরিচ-ধনিয়া পাতাবেসন ও ছোলার দাম কিছুটা বাড়তে পারে। কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন, বাজারে তখন চাহিদা বেশি থাকে।
বাজার পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন, কুমিল্লা ভোক্তা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আছাদুল ইসলাম। তিনি বলেন, আমরা প্রতিদিনই বাজার মনিটরিং করছি। সোমবার আমরা কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি বাজারে কয়েকজন বিক্রেতাকে জরিমানা করেছি। কারণ তারা সরকার নির্ধারিত খোলা তেল ১৩৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি না করে ১৫৬ বা ১৬০ টাকা দরে বিক্রি করছিলো। দ্রব্যমূল্যের দাম স্বাভাবিক রাখতে আমরা পুরো রমজান মাস অভিযান পরিচালনা করবো।
দ্রব্যমূল্যের দাম নিয়ন্ত্রণ নিয়ে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শাহাদাৎ হোসেন বলেন, এখন পর্যন্ত যে রিপোর্ট আছে তাতে বাজার স্বাভাবিক আছে। তবুও রমজানে যেন নিত্যপণ্যের দাম স্বাভাবিক থাকে সে লক্ষ্য আমরা ২৮ মার্চ বিকেলে ব্যবসায়ী নেতাদের নিয়ে সভা করবো। এছাড়াও পুরো রমজানে জেলাজুড়ে টাস্কফোর্সের অভিযান থাকবে। সবার সম্মিলিত অংশগ্রহণে বাজার মূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে জেলা প্রশাসন বদ্ধ পরিকর।