রবিবার ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
Space Advertisement
Space For advertisement
  • প্রচ্ছদ » sub lead 2 » দেবিদ্বারে কলেজে ভর্তি না হতে পেরে মাদ্রাসা ছাত্রীর আত্মহত্যা!


দেবিদ্বারে কলেজে ভর্তি না হতে পেরে মাদ্রাসা ছাত্রীর আত্মহত্যা!


আমাদের কুমিল্লা .কম :
25.01.2023

খলিলুর রহমান বাবুল , দেবিদ্বার ।। কুমিল্লার দেবিদ্বারে কলেজে ভর্তি হতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে নুসরাত জাহান মুন্নী (১৬) নামের এক মাদ্রাসা ছাত্রীর আত্মহত্যা করার খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার সকাল ৭টায় উপজেলার এলাহাবাদ ইউনিয়নের কুড়াখাল গ্রামে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার এলাহাবাদ ইউনিয়নের কুড়াখাল গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ৪ মেয়ে ও ২ পুত্র সন্তানের মধ্যে বড় সন্তান নুসরাত জাহান মুন্নী ধামতী কামিল মাদ্রাসায় আলীম শ্রেণীর প্রথম বর্ষের ছাত্রী। মঙ্গলবার সকাল ৭টায় নিজ ঘরের একটি কক্ষে গলায় ফাঁস দিয়ে নুসরাত জাহান মুন্নী আত্মহত্যা করে। পরিবারের পক্ষ থেকে আত্মহত্যার কারন বলতে না পারলেও তার সহপাঠীদের বক্তব্য, মুন্নী কলেজে ভর্তি হতে না পাড়ায় রাগ ও অভিমানে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে।

তার মৃত্যু সংবাদে দেখতে আসা কয়েকজন সহপাঠী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, নুসরাত জাহান মুন্নী এবং তার ছোট বোন ইসরাত জাহান ইভা আমাদের সাথে ধামতী কামিল মাদ্রাসা থেকে দাখিল পাশ করে। মুন্নীর ইচ্ছা ছিল কলেজে লেখা পড়া করবে। তার ইচ্ছা উপেক্ষা করেন তার ‘বাবা- মা’। বাধ্য হয়ে ধামতী কামিল মাদ্রাসায় ভর্তি হতে হয়। সেই থেকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে সে মাদ্রাসায় ভর্তি হলেও মাদ্রাসায় লেখা পড়ায় অমনোযোগী ছিল। ঘটনার তিনদিন পূর্বে উপজেলার উজানীজোড়া গ্রামে সে ও তার ছোট বোন ইভা নানার বাড়ি বেড়াতে যায়, সেখান থেকে সোমবার বাড়িতে আসে। আজ (মঙ্গরবার) আমাদের সাথে মাদ্রাসায় যাওয়ার কথা ছিল।

নিহতার মা’ রুমি আক্তার জানান- তার দুই মেয়ে মুন্নী এবং ইভা তাদের নানার বাড়ি থেকে গতকাল দুপুরে বাড়ি আসে। রাতে খাবার খেয়ে পাশের কক্ষে দুই বোন এক সাথে ঘুমায়। আজ (২৪ জানুয়ারী মঙ্গলবার) সকালে উঠে নামাজ পড়ে, আমি রান্না ঘরে যাই, কারন ওরা মাদ্রাসায় যাবে। এসময় মুন্নী পাশের কক্ষে গিয়ে দরজা বন্ধ করে আবারো ঘুমাতে যায়। খাবার তৈরী করে তাকে অনেক ডাকা ডাকি করে কোন সাড়া না পেয়ে জানালার ফাঁক দিয়ে দেখি ঘরের তীরের সাথে ফাঁস দিয়ে ঝুলে আছে।

কান্না জড়িত কন্ঠে মুন্নীর বাবা আনোয়ার হোসেন বলেন, আমার মেয়ে যেহেতু মাদ্রাসা থেকে দাখিল পাস করেছে, তাই তাকে মাদ্রাসায়ই ভর্তি করি। মেয়েটা খুব এক রোখা ও জেদী ছিল।

এ ব্যপারে দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ কমল কুষ্ণ ধর জানান, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে আনি। আত্মহত্যার কারন অজ্ঞাত। নিহতের মরদেহ ছোরতহাল রিপোর্ট তৈরী এবং থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের পূর্বক ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি।