রবিবার ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
Space Advertisement
Space For advertisement
  • প্রচ্ছদ » sub lead 1 » কুমিল্লায় বিএনপির গণসমাবেশ এমপি রুমিন ফারহানাসহ অর্ধশত নেতাকর্মীর ফোন চুরি


কুমিল্লায় বিএনপির গণসমাবেশ এমপি রুমিন ফারহানাসহ অর্ধশত নেতাকর্মীর ফোন চুরি


আমাদের কুমিল্লা .কম :
27.11.2022

স্টাফ রিপোর্টার ।।  কুমিল্লা বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে মোবাইল চুরির হিড়িক পড়েছে। শনিবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে নগরীর টাউনহল মাঠে সমাবেশ শুরুর আগে এবং পড়ে এসব ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। এদিন নেতা-কর্মীদের ভিড়ের মধ্যে অর্ধশতাধিক মোবাইল ফোন চুরি হয়েছে বলে ভুক্তভোগীরা জানিয়েছেন।
এর আগে শুক্রবার রাতে বিএনপির কুমিল্লা বিভাগীয় সমাবেশস্থল টাউন হল মাঠ থেকে বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সহ সম্পাদক ও সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ব্যরিস্টার রুমিন ফারহানার মোবাইল ফোনসহ আরো বেশ কয়েকজনের ফোন চুরি হয়েছে।
এ ঘটনায় কুমিল্লা কোতোয়ালি থানায় একটি জিডি করা হয়েছে বলে শনিবার সকালে জানান এমপি রুমিন ফারহানার ব্যক্তিগত সহকারী শুভ্র।
শুভ্র জানান, শুক্রবার রাত ৯টায় কুমিল্লা বিভাগীয় সমাবেশস্থল টাউন হল মাঠে যাওয়ার পর কোনো একসময় তার ব্যাগ থেকে মোবাইল ফোনটি চুরি হয় বলে জানিয়েছেন তিনি। পরে বিষয়টি অনুমান করতে পেরে এমপি রুমিন তার ব্যাগ খুলে দেখেন। তবে মোবাইল ফোন ছাড়া অন্য কিছু খোয়া যায়নি।
এছাড়া এদিন রাতে বরুড়ার এক যুবদল কর্মীসহ আরো বেশ কয়েকজনের মোবাইল ফোন চুরি হয়।
শনিবার সকালে কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলা থেকে আসা বিএনপি কর্মী মো. আশিক বলেন, সমাবেশ শুরুর সময় আমি মঞ্চের সামনেই ছিলাম। হঠাৎ করে দেখি আমার মোবাইলটা নাই। আমার এক হাতে পতাকা আরেক হাতে ফেস্টুন ছিল। এ সুযোগে চোরের দল আমার মোবাইলটা নিয়ে যায়।
চান্দিনা থেকে আসা বিএনপির কর্মী সালেক মিয়া বলেন, ‘আমি টাউনহলে এসে স্লোগান দিচ্ছিলাম। ছবি তোলার জন্য পকেটে হাত দেই। দেখি আমার মোবাইলটা নেই। আমার ছোট ভাই দুবাই থেকে পাঠিয়েছিল ফোনটি। মনটা খারাপ হয়ে গেল।
কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার মালাপড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মামুনের মোবাইল ফোন চুরি হয়ে গেছে।
চাঁদপুর থেকে আসা বিএনপির কর্মী আবুল কালাম বলেন, ‘আমার মোবাইলটা খুব দামী না। আমি যখন হাততালি দিয়ে স্লোগান দিচ্ছিলাম তখনই কে যেন পকেটে হাত দিল। এক সেকেন্ডের মধ্যেই পকেটে হাত দিয়া দেখি মোবাইলডা গায়েব।
সমাবেশ আসা অন্তত দশজন নেতাকর্মী জানায়, নেতাকর্মীরা স্লোগান-মিছিল করার সময় অর্ধশতাধিক মোবাইল খোয়া যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।
জেলা যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক মো. শাহ আলম বলেন, শুক্রবার রাত থেকেই মোবাইল চুরির ঘটনা শুরু হয়। আজ সমাবেশ শুরুর আগেই এমন অবস্থা। সমাবেশ শেষে এনিয়ে কথা বলবো।