রবিবার ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
Space Advertisement
Space For advertisement


আজ কুমিল্লায় বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ


আমাদের কুমিল্লা .কম :
25.11.2022

স্টাফ রিপোর্টার।।
বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবিসহ বিভিন্ন ইস্যুতে আজ শনিবার কুমিল্লা বিভাগীয় গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। কুমিল্লা টাউন হল মাঠে সকাল ১১টায় আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে এ গণসমাবেশ। ইতিমধ্যে কানায় কানায় পূর্ণ কুমিল্লার ঐতিহাসিক টাউনহল মাঠসহ আশে পাশের এলাকা। খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে বৃহস্পতিবার থেকেই সমাবেশস্থলে আশা শুরু করেছেন নেতাকর্মীরা। চাঁদপুর ও ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলার নেতাকর্মীদের মধ্যে অনেকে আবার বুধবার রাতেই চলে এসেছেন। গতকাল শুক্রবার কুমিল্লা ছিল এক ঐতিহাসিক উৎসবের নগরী। কুমিল্লার এ যাবতকালের ইতিহাসে কোন রাজনৈতিক দলের সমাবেশকে কেন্দ্র করে নেতাকর্মীদের মধ্যে অংশগ্রহনের এমন উৎসাহ উদ্দীপনা আর দেখা যায়নি। হাতে হাতে প্ল্যাকার্ড, ব্যানার, নেতাকর্মীদের ছবি ও ধানের শীষ লেখা সংবলিত ফেস্টুন নিয়ে টাউন হলের মাঠে শুক্রবারই দখল করে রেখেছেন নেতাকর্মীরা। খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দিচ্ছেন তারা।গণসমাবেশ সফল করতে ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করে নিয়ে এসেছেন আয়োজকরা।কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক ও কেন্দ্রীয় বিএনপির ত্রান ও পুনর্বাসন বিষয়ক সম্পাদক হাজী আমিন উর রশীদ ইয়াছিন এ কথা নিশ্চিত করেছেন। গণসমাবেশ আয়োজক কমিটির সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা উত্তর ও দক্ষিণ জেলা, চাঁদপুর, ব্রাহ্মনবাড়িয়া ও কুমিল্লা মহানগর এই পাঁচটি ইউনিট নিয়ে বিএনপির রাজনৈতিক বিভাগ হলো কুমিল্লা। এই বিভাগীয় গণসমাবেশ সফল করতে গত একমাস ধরে বিরতিহীন ভাবে নানা প্রকার প্রচার প্রচারণা ও গনসংযোগ করে প্রস্তুতি নিয়েছেন বিএনপি। এই উপলক্ষে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ড. খন্দকার মোশারফ হোসেনকে প্রধান উপদেষ্টা ও কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলুকে টিম লিডার করে একটি গণসমাবেশ আয়োজক কমিটি করা হয়েছে। আয়োজক কমিটির সূত্র জানায়, আজ শনিবার দুপুর ২ টার সময় গণসমাবেশ শুরু হওয়ার কথা থাকলেও যেহেতু নেতাকর্মীরা দুইদিন আগেই সমাবেশস্থলে পৌঁছে গেছেন তাই তারা যাতে তারাতারি বাড়ি ফিরে যেতে পারে তাই বিকালের মধ্যেই সমাবেশ শেষ করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তারা। এজন্য বেলা ১১টায় গণসমাবেশ শুরু হবে। সাবেক এমপি ও কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক হাজী আমিন উর রশীদ ইয়াছিনের সভাপতিত্ব অনুষ্ঠিতব্য বিএনপির কুমিল্লা বিভাগীয় এই গণসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন বিএনপির মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেনসহ দলের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের নেতারা সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন বলে জানা গেছে। এদিকে, গতকাল শুক্রবার গণসমাবেশস্থল কুমিল্লা কান্দিরপাড়স্থ ঐতিহাসিক টাউন হল মাঠে গিয়ে দেখা যায়, উত্তর পশ্চিম কোনে এক বিশাল আকারের মঞ্চ প্রস্তুত করা হয়েছে। মঞ্চের চর্তুদিকে লাগানো হয়েছে প্রায় ২৫০টি মাইক। এবং মঞ্চের দূরের নেতাকর্মীরা যাতে গণসমাবেশের মুলমঞ্চ দেখতে পারে সেই জন্য নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে বড় পর্দা স্থাপন করা হচ্ছে। শুক্রবার বিকেলে মধ্যেই সমাবেশ স্থল কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে। কুমিল্লা বিভাগীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক মিয়া জানিয়েছেন, টাউনহল মাঠ থেকে চর্তুদিকে এক কিলোমিটারের বেশী জায়গায় আমাদের নেতাকর্মী ও সাধারণ জনগন থাকবে যারা বক্তব্য শুনবেন। এদিকে, শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে শুরু হয়েছে বিভাগের বিভিন্ন জেলা থেকে বিএনপির নেতাকর্মীদের সাথে সাধারণ মানুষেরও আসা। একটি রাজনৈতিক দলের কর্মসূচীতে এত বেশী সাধারণ মানুষের আগ্রহ নিকট অতীতে কুমিল্লায় দেখা যায়নি বলে জানিয়েছেন মহানগর বিএনপি নেতা কাওসার জামান বাপ্পী। এদিকে, সমাবেশকে সফল ও স্বার্থক করার জন্য গতকাল সকালে নগরীতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন। তিনি জানিয়েছেন, কুমিল্লার মানুষ শনিবারের গণসমাবেশে রাতের ভোটের এই অবৈধ সরকারকে লাল কার্ড দেখাবে। অপর দিকে, গতকাল শুক্রবার গণসমাবেশে আগত নেতাকর্মীদের নিয়ে কুমিল্লা টাউন হল মাঠ ও কেন্দ্রীয় ঈদগা ময়দানে পৃথক দুটি জুমা নামাজের জামায়াত হয়। এই জামাতগুলোতে বিএনপির কেন্দ্রীয় ও স্থানীয়সহ শত শত নেতাকর্মীরা অংশ গ্রহন করেছেন। এ দিকে, বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক এমপি কর্নেল(অব:) এম আনোয়ারুল আজিম বলেছেন, মনোহরগঞ্জের যে সকল নেতাকর্মী কুমিল্লার গণসমাবেশে এসেছে তাদের বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়েছে স্থানীয় আওয়ামীলীগের সন্ত্রাসীরা। তিনি বলেন, হামলা মামলা করে শহীদ জিয়ার সৈনিকদের দাবিয়ে রাখা যাবে না। কুমিল্লা নগরীর বাহিরে থেকে আগত বিভিন্ন জেলা এবং উপজেলার নেতাকর্মীদের থাকা ও খাওয়ার পৃথক ব্যবস্থা করেছেন কুমিল্লা মহানগর বিএনপি ও সাবেক সিটি মেয়র মনিরুল হক সাক্কু। কুমিল্লা মহানগর বিএনপির আহবায়ক উৎবাতুৃল বারী আাবু ও সদস্য সচিব ইউছুফ মোল্লা টিপু জানিয়েছেন, মহানগর বিএনপির পক্ষ থেকে আমরা বৃহস্পতিবারই ১০টি গরুর ব্যবস্থা করেছি। প্রয়োজনে আজ (শুক্রবার) আরো ব্যবস্থ্ াকরব। কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির াআহবায়ক হাজী আমিন উর রশীদ ইয়াছিন জানিয়েছেন নেতাকর্মীদের যাতে কোন কষ্ট না হয় থাকা ও খাবারে সেজন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে সতর্ক থাকতে বলে দিয়েছি।