রবিবার ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
Space Advertisement
Space For advertisement


প্রতারণার মামলায় দশপাড়ার মেম্বার মাহফুজ ও সহযোগি বাবুল কারাগারে


আমাদের কুমিল্লা .কম :
08.11.2022

স্টাফ রিপোর্টার ।। গ্যাস সংযোগের নামে কোটি টাকার জালিয়াতির মামলায় কারাগারে কুমিল্লার দাউদকান্দির দশপাড়ার এলাকার ইউপি সদস্য মো. মাহফুজুর রহমান ও সহযোগি মাহবুবুর রহমান বাবুল। গ্রাহকের করা প্রতারণার মামলায় গতকাল সোমবার হাজিরা দিতে গেলে তাদের জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠান আদালত। এলাকাবাসী জানান, ২০১৫ সালের ২১ আগস্ট ঘরে ঘরে গ্যাস সংযোগ দেয়ার কথা বলে প্রায় ২শ’ জনের কাছ থেকে ২ কোটি টাকা নিয়ে আত্মসাৎ করেছেন অভিযুক্ত মাহফুজ মেম্বার। বিনিময়ে অবৈধ ও জালিয়াতিপূর্ণ গ্যাস বই সরবরাহ করেন। সাধারণ মানুষ তা সত্য ভেবে বছরের পর বছর তার মাধ্যমে গ্যাস বিল জমা দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু চলতি বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অভিযান চালিয়ে অবৈধ গ্যাস সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করে দেন। এতে এলাকায় দেখা দেয় মিশ্র প্রতিক্রিয়া। তখন ভুক্তভোগীদের পক্ষে একই এলাকার আব্দুল বারেকের ছেলে মো. আক্তার হোসেন বাদি হয়ে মো. রহিমউদ্দিনের ছেলে মাহফুজ ও মৃত সহিদুল্লাহ ডিলারের ছেলে মো. মাহবুবুর রহমান বাবুলকে আসামি করে কুমিল্লার আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। যার সিআর মামলা নং ১২৬/২২ তাং ২৪/০৩/২২।
মামলার সার্বিক তদন্ত, সাক্ষী-প্রমাণ ও ঘটনার পারিপার্শ্বিকতায় দুই আসামি মো. মাহফুজুর রহমান ও মাহবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে পেনাল কোডের ৪৬৭/৪০৬/৪২০/১০৬ ধারায় অপরাধ প্রাথমিকভাবে সত্য প্রমাণিত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ৭ নভেম্বর কুমিল্লার আদালতে হাজির হলে ৩ নং আমলী আদালত তাদেরকে জেলহাজতে পাঠিয়ে দেন। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে স্বস্তি প্রকাশ করেন প্রতারণার শিকার গ্রাহকরা।
স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল ওহাব পাঠান বলেন, এলাকায় ত্রাস সৃষ্টিকারী দুই অভিযুক্ত মাহফুজ মেম্বার ও বাবুল, খন্দকার নাসিরুল কবির এবং রেহা কবির বাহিনীর অন্যতম ক্যাডার। নিরীহ মানুষের মধ্যে সুদের ব্যবসা, জুয়া এমনকি সরকার নিষিদ্ধ ড্রেজারের মাধ্যমে মাটি খনন করে আশেপাশের মানুষের জমির ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে আসছেন তারা। নিরীহ মানুষ নাসিরুল কবির ও রেহা বাহিনীর অত্যাচারে নির্বিকার। তাদের অভিযোগ এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে কেউ রুখে দাঁড়ালেই হামলা মামলাসহ অমানুষিক নির্যাতন চালানো হচ্ছে। এ চক্রটি শুধু এখানেই থেমে নেই। প্রয়াত ইমাম হাফেজ আবুল বাশারের স্ত্রীরও শ্লীলতাহানীরও অপচেষ্টা করেছিলো। এতে ভুক্তভোগী হাফেজা আমেনা অভিযুক্ত মাহবুবুর রহমান বাবুল ও খন্দকার নাসিরুল কবিরসহ আরও ৫-৬ জনের বিরুদ্ধে কুমিল্লার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রইব্যুনাল ৩ নং আদালতে মামলা করেন। মামলা নং বিপি ৫৭১/২০২২, তাং- ২৯/০৯/২০২২ । এ মামলাটির তদন্ত চলছে বলে জানা গেছে। অভিযুক্তদের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে ইতোমধ্যে একাধিকবার প্রশাসনকে জানানো হয়েছে।
বঙ্গবন্ধুর খুনি মোস্তাকের আপন ভাতিজা নাসিরুল কবির ও নাতনি রেহা কবিরের পৃষ্ঠপোষকতায় এ বাহিনী দিন দিন মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। দশপাড়ায় এমন কোনো কাজ নেই যা তাদের দ্বারা সংগঠিত হয়নি। তাই এ বাহিনীকে সমূলে উৎপাটন করার দাবি এলাকার শান্তিপ্রিয় মানুষের।