মঙ্গল্বার ৩১ জানুয়ারী ২০২৩
Space Advertisement
Space For advertisement


কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে ত্রিমুখী সংঘর্ষে শিক্ষার্থীসহ আহত ৪০


আমাদের কুমিল্লা .কম :
01.09.2022

স্টাফ রিপোর্টার ।। কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও পুলিশের মধ্যে ত্রিমুখী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার সকাল ৯টার দিকে নাঙ্গলকোট পৌর এলাকায় এ সংঘর্ষ শুরু হয়ে বেলা ১২টা পর্যন্ত অব্যাহত ছিলো। এতে শিক্ষার্থী,পুলিশসহ অন্তত: ৪০জন আহত হয়েছে। অপরদিকে কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার সুয়াগাজী বাজারে বুধবার আওয়ামী লীগ ও বিএনপি একই স্থানে বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দেয়। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।
জানা গেছে, জ্বালানি তেল, পরিবহন ভাড়াসহ সকল দ্রব্যের মূল্য বৃদ্ধি এবং ভোলায় ছাত্রদল নেতা নুরে আলম ও স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আব্দুর রহিম হত্যার প্রতিবাদের বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে নাঙ্গলকোট উপজেলা বিএনপি। সকাল ৯ টার আগে দলে দলে বিএনপির নেতাকর্মীরা জড়ো হতে থাকে। তারা লোটাস চত্বরসহ বিভিন্ন জায়গায় অবস্থান নিয়ে মিছিল করে। এসময় পুলিশি বাধার মুখে পড়ে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। কর্মীরা লোটাস চত্বওে নৌকা প্রতীক ভাঙচুর করে। একপর্যায়ে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে যায় বিএনপির নেতাকর্মীরা। ওসিসহ পুলিশের ৪জন সদস্য আহত হয়েছেন। এক পর্যায়ে আওয়ামী লীগ-বিএনপি পাল্টা ইটপাটকেল ছুড়তে থাকে। দীর্ঘ সময় ধরে থেমে চলা সংঘর্ষে নাঙ্গলকোট সদরের পথচারী ও ব্যবসায়ীদের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এদিকে পুলিশের নিক্ষিপ্ত টিয়ারশেলে স্থানীয় এ আর মডেল হাইস্কুলের অন্তত ২৫শিক্ষার্থী আহত হয়েছে।
উপজেলা বিএনপির সভাপতি নজির আহমেদ ভূঁইয়া বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করছিলাম। পুলিশ আমাদের ওপর অন্যায়ভাবে লাঠিচার্জ করেছে। তাদের সাথে যোগ দেয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। এতে আমাদের ১৫ জন কর্মী আহত হয়।
উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যক্ষ সাদেক হোসেন ভূঁইয়া বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ অবস্থান নিই। বিএনপির নেতাকর্মীরা উপস্থিত হয়ে বিক্ষোভের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে। পুলিশ তাদের বাধা দেয়। আমরা কারো উপর হামলা করিনি।
নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. দেবদাস দেব বলেন, নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২৫জন স্কুল শিক্ষার্থীকে ভর্তি করা হয়। তারা নাঙ্গলকোট এ আর মডেল হাইস্কুলের শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ২২ জন প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরে গেছে।
নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফারুক হোসেন বলেন, আমাদের বেশ কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। আহত সদস্যদের সেবা নিশ্চিতে ব্যস্ত রয়েছি।