বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২
Space Advertisement
Space For advertisement


সিইসির ভুলের বিচার কে করবেন- প্রশ্ন সাক্কুর


আমাদের কুমিল্লা .কম :
21.06.2022

স্টাফ রিপোর্টার ।। কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু বলেছেন, নির্বাচনের ৩দিন পর সিইসির(প্রধান নির্বাচন কমিশনার) মনে হলো নির্বাচন নিয়ে ব্যাখা দিতে হবে। ৪দিন পর মনে হলো এমপি বাহার সাহেবকে এলাকা ত্যাগের নির্দেশ দেয়া ঠিক হয়নি। তিনি এখন বলছেন নির্দেশ দেয়া ভুল হয়েছে। তার ভুলের বিচার কে করবেন? তিনি নির্বাচনের নামে এমন প্রহসন না করলেও পারতেন। তিন চার দিন লাগিয়ে হিসাব নিকাশ মিলিয়ে ব্যাখ্যা দিচ্ছেন। দেশের মানুষ নতুন নির্বাচন কমিশনের কাছে এটা আশা করেননি। তারা বাঁচার জন্য এই ব্যাখ্যা দিচ্ছেন।
কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ফল ঘোষণা নিয়ে নির্বাচন কমিশনের দেওয়া ব্যাখ্যা প্রত্যাখ্যান ও সোমবার এমপি বাহারকে নিয়ে সিইসির বক্তব্য প্রসঙ্গে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু বাংলাদেশ প্রতিদিনকে এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, ওপর মহলের নির্দেশে কমিশন তার ফল ছিনিয়ে নিয়েছে। ফলাফল ঘোষণার সময় বেশির ভাগ সাংবাদিক শিল্পকলা একাডেমিতে ছিলেন। তাদের ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সামনেই সবকিছু ঘটেছে। সেখানে ৪৫ মিনিট থেকে ১ ঘণ্টা ফল ঘোষণা বন্ধ ছিল। ভোটাররা তাঁকে উজাড় করে ভোট দিয়েছেন। অনেকে ভেবেছিলেন, আমি নির্বাচনী মাঠে থাকব না। নির্বাচন থেকে সরে যাব। আমি এমপি বাহারের প্রার্থীর বিরুদ্ধে সাহস করে মাঠে ছিলাম। সরে গেলে কুমিল্লার মানুষ আমাকে খারাপ ভাবতেন। আমার নেতাকর্মীরা অন্য চোখে দেখতেন। মানুষ ভোট দিয়েছে। আর ওরা আমার জয়টা ছিনিয়ে নিয়েছে। মানুষ কমিশনের ফল ঘোষণার এমন আচরণে মর্মাহত। দেখছেন না, ভোটের পরের কয়টা দিন পুরো শহরটা স্তব্ধ হয়ে আছে।
উল্লেখ্য- ১৫জুনের নির্বাচনে ৫জন মেয়র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত ৫০ হাজার ৩১০ ভোট পেয়েছেন। তাকে বিজয়ী ঘোষণা করে কমিশন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু পেয়েছেন ৪৯ হাজার ৯৬৭ ভোট। অপর স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার পেয়েছেন ২৯হাজার ২৯ ভোট।