রবিবার ২৬ জুন ২০২২
Space Advertisement
Space For advertisement
  • প্রচ্ছদ » sub lead 3 » মেয়র সাক্কুসহ বিএনপি নেতাদের নামে অপপ্রচারের অভিযোগ


মেয়র সাক্কুসহ বিএনপি নেতাদের নামে অপপ্রচারের অভিযোগ


আমাদের কুমিল্লা .কম :
26.10.2021

স্টাফ রিপোর্টার।।
কুমিল্লা নগরীতে পূজামণ্ডপে কোরআন অবমাননাসহ ভাংচুরের ঘটনায় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র মনিরুল হক সাক্কু ও মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইউছুফ মোল্লা টিপুসহ নেতৃবৃন্দকে জড়ানোর জন্য ষড়যন্ত্র চলছে। ওই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে কয়েকটি গণমাধ্যম ও কুচক্রি মহল তাদের বিরুদ্ধে নানান অপপ্রচার চালাচ্ছে। মঙ্গলবার বিকালে নগরীর কান্দিরপাড়ে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপি কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে এমন অভিযোগ তুলে ধরেন দলটির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপি নেতা আবদুর রউফ চৌধুরী ফারুক, আবদুস সালাম মাসুক, ভিপি জসিম উদ্দিন, আবুল হোসেন, নজরুল ইসলামসহ দল ও অঙ্গসংগঠনের স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।
লিখিত বক্তব্যে সৈয়দ জাহাঙ্গীর বলেন, সিটি করপোরেশনের নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি দলীয় মেয়র মনিরুল হক সাক্কুসহ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে একটি মহল পূজামণ্ডপের ঘটনাকে পুঁজি করে গণমাধ্যমে অসত্য তথ্য দিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। এ ঘটনাকে অতি নিন্দনীয় ও ন্যাক্কারজনক আখ্যা দিয়ে জড়িত প্রকৃত দোষী যে বা যারাই হোক তাদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়।
তিনি আরও বলেন, ওই পূজামণ্ডপের প্রতিমা থেকে পবিত্র কোরআন সরানোর সময় মো.ফয়েজ অঅহমেদ নামে যে ব্যক্তি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে লাইভ প্রচার করেছেন, তার সাথেও এক জনপ্রতিনিধির ছবি রয়েছে। তাহলে কী বোঝা যাবে ওই ব্যক্তি সেই জনপ্রতিনিধির লোক? কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ও মহানগর বিএনপি মনে করে সামনের সিটি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মেয়র সাক্কুর বিরুদ্ধে অসত্য তথ্য দিয়ে একটি গভীর ষড়যন্ত্র করছে। মেয়র সাক্কু ও বিএনপিকে ঘায়েল করার জন্য কুচক্রি মহল ষড়যন্ত্র করছে। এ ধরণের অপপ্রচার থেকে সকলকে সতর্ক থাকার অনুরোধ করছি। সঠিক তদন্তের মাধ্যমে এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি।
এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা আবদুর রউফ চৌধুরী ফারুক, আবদুস সালাম মাসুক,আবুল হোসেন, নজরুল ইসলাম স্বপন,সাজ্জাদুল কবির সাজ্জাদ প্রমুখ।
উল্লেখ্য, দেশে উৎসবমুখর পরিবেশে দুর্গাপূজা চলাকালে গত ১৩ অক্টোবর ভোরে কুমিল্লা নগরীর নানুয়ার দীঘির পাড়ের ওই পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরীফ পাওয়ার অভিযোগ উঠে। এনিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে।